পাঁচ কারণে হচ্ছে প্রশ্ন ফাঁস: সাবেক শিক্ষামন্ত্রী শেখ শহীদুল ইসলাম

প্রকাশিতঃ 1:38 pm | February 19, 2018

১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৮
সাবেক শিক্ষামন্ত্রী শেখ শহীদুল ইসলাম বলেছেন, এখন প্রশ্ন ফাঁস নৈমিত্তিক ঘটনা হয়ে দাঁড়িয়েছে। এর জন্য পাঁচটি কারণ ভীষণভাবে দায়ী। এই চিহ্নিত সমস্যাগুলো সরকার যদি সদিচ্ছার সঙ্গে মোকাবিলা করে, তাহলে প্রশ্ন ফাঁস রোধ করা সম্ভব। বাংলাদেশ প্রতিদিনকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি এ মন্তব্য করেন।

তিনি বলেন, ‘প্রথমত, এখন অলিতে-গলিতে পরীক্ষাকেন্দ্র। কেন্দ্রের সংখ্যা বাড়ানো হলেও সে অনুযায়ী নিরাপত্তা জোরদার করা হয়নি। সুরক্ষার অভাবে পরীক্ষাকেন্দ্র থেকে ফাঁস হয়ে যাচ্ছে প্রশ্ন। দ্বিতীয়ত, প্রশ্ন ফাঁস করা হয় বিভিন্ন মহল থেকে। এতে জড়িত রয়েছে কোচিং সেন্টার ও সংশ্লিষ্টরা। পরীক্ষার ব্যবস্থাপনা ও পরিচালনাকারীদের সঙ্গে এদের সূক্ষ্ম যোগসাজশ রয়েছে। এই চক্রের হাত ধরে পরীক্ষা শুরুর আগেই ছড়িয়ে পড়ছে প্রশ্ন। তৃতীয়ত, আমাদের সমাজে এখন দেখা দিয়েছে ভয়াবহ মূল্যবোধের অবক্ষয়। এ পরিস্থিতি আমাদের ভাবিয়ে তুলছে। টাকা দিয়ে প্রশ্ন কেনাবেচা করতে বাধছে না এই অসৎ শ্রেণির মানুষদের। চতুর্থত, আরেকটি বিষয় খুব জরুরি হয়ে দেখা দিয়েছে, তা হলো প্রযুক্তি। সামগ্রিক দিক থেকে প্রযুক্তি যখন এগিয়ে যাচ্ছে, তখন আমাদের পরীক্ষা পদ্ধতির নিয়ন্ত্রণ, বিতরণ, ব্যবস্থাপনা চলছে পুরনো পদ্ধতিতে। এই পুরনো পদ্ধতিকে পাশ কাটিয়ে প্রযুক্তির সহায়তায় প্রশ্ন ফাঁস চালিয়ে যাচ্ছে অপরাধীরা। সর্বশেষটি হচ্ছে, আমার কাছে মনে হয়, এই ধারাবাহিক প্রশ্ন ফাঁসের মূলে নিঃসন্দেহে রয়েছে প্রশাসনিক ব্যর্থতা। পরীক্ষার পুরো পদ্ধতি নিয়ন্ত্রণে নৈতিকতাসম্পন্ন মানুষের প্রয়োজন।

প্রশাসনিক নিয়ন্ত্রণ শিথিল হয়ে যাওয়ায় প্রশ্ন ফাঁস খুব সাধারণ ব্যাপার হয়ে দাঁড়াচ্ছে। অতিদ্রুত প্রশ্ন ফাঁস রোধ করতে না পারলে পুরো শিক্ষাব্যবস্থাটা অকার্যকর হিসেবে গণ্য হবে।’

বিডি প্রতিদিন